জার্মানির কোচ জোয়াকিম লো ২০২২ সাল পর্যন্ত দলের নতুন দায়িত্ব পেয়েছেন। বোয়াটেং, গোমেজরা দলে আছেন। ড্রাক্সলার, গুন্ডুগানদের নিয়ে কোন কথা নেই। সমালোচনার শিকার হয়েছেন ওজিল বেশি। তার সঙ্গে বর্ণবাদি আচরণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ ওজিলের। আর তাই তিনি ক্ষোভে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন।

ওজিলের অবসর এবং অভিযোগের এক দিনের মধ্যেই মুখ খুলেছে জার্মান ফুটবল ফেডারেশন (ডিএফবি)। মেসুত ওজিলের ‘বর্ণবৈষম্যে’র অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে উল্লেখ করেছে ডিএফবি। ২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ের অন্যতম কারিগর ওজিলের অভিযোগের বিষয়ে এক বিবৃতি একথা জানায় সংস্থাটি ।

ওজিলের অভিযোগ, জার্মানি জিতলে তাকে জার্মান আর হারলে বিদেশি ভাবা হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তিন পাতার এক চিঠিতে ওজিল উল্লেখ করেন, কিভাবে বার বার তাকে ‘অপমানিত’ করা হয়েছে। আর ওই পরিস্থিতিতে তার জার্মানির হয়ে আর খেলা সম্ভব নয় বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

ওজিলের অভিযোগের ভিত্তিতে জার্মান ফুটবল ফেডারেশন জানিয়েছে, ‘জাতীয় দল থেকে ওজিলের অবসর নেওয়াটা দুঃখজনক। তবে বর্ণবৈষম্যের যে অভিযোগ ওজিল করেছেন, তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। সম্প্রীতি রক্ষা করাই আমাদের মূল লক্ষ্য। বছরের পর বছর ধরে ডিএফবি সেটাই করে চলেছে।’

ওদিকে কোচ লো’র উপদেষ্টা হারুন আরসলান বলেন, ওজিল অবসরের সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে তাকে এবং কোচ লো’কে কিছুই জানান নি। তিনি বলেন,  ওজিলের অবসরের কারণ বর্ণবাদি আচরণের শিকার হওয়া নয়। বরং কারণটা দীর্ঘদিন ফর্মে না থাকা। ২০১৪ সালের পর ওজিল আর ভালো ফর্মে নেই বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

Share