গোপন অঙ্গের দুর্গন্ধ জনিত সমস্যায় পুরুষ মহিলা নির্বিশেষে প্রায় অনেকেই ভোগেন । কেউ এই ব্যাপারগুলোর জন্য ডাক্তারের কাছে যান কেউ আবার সম্পূর্ণ এড়িয়ে যান । অনেকে বাজারের চলতি পারফিউম পাউডার ব্যবহার করেন ।

কিন্তু, এগুলো ক্ষণস্থায়ী । এইধরনের প্রসাধনী দ্রব্য ব্যবহার করার পরেও, দুর্গন্ধের শিকার থেকে মুক্ত হতে পারছেন না অনেকেই। বিশেষ করে মহিলাদের ক্ষেত্রে এই সমস্যা অনেক বেশী। এবং এটা এতই বিব্রতকর একটি সমস্যা, যে, কাউকে বলাও যায় না। আবার সহ্যও করা যায় না। আর এমন সমস্যা নিয়ে ডাক্তারের কাছে যাবার কথা তো কোন মহিলা চিন্তাও করেন না।

কিন্তু মনে রাখবেন, আপনার স্বাভাবিক যৌন জীবনে মারাত্মক সমস্যা তৈরি করতে পারে গোপন অঙ্গে দুর্গন্ধ। বিশেষ করে, মেয়েদের ক্ষেত্রে পিরিয়ডের সময় খুব সুক্ষ্মভাবে ঘ্রাণটি পরিবর্তিত হয়ে যায়। এছাড়াও মানুষের বগল, পায়ের পাতা কিংবা শরীরের অন্যান্য ভাঁজের জায়গায় দুর্গন্ধ হয়ে থাকে। গোপন অঙ্গটিও বাদ যায় না। জেনে নিন, এর হাত থেকে মুক্তি পাওয়ার সহজ উপায়-

স্বাস্থ্য ভাল হয়ে থাকলে, শরীরের ভাঁজে ভাঁজে ঘাম জমে যায়। সেখানে ব্যাকটেরিয়া জন্মায় ও দুর্গন্ধের সৃষ্টি হয়। এছাড়া গোপন অঙ্গে ইস্ট বা ব্যাকটেরিয়া ইনফেকশন থেকে হতে পারে খুবই বাজে দুর্গন্ধ। গোপন অঙ্গ সঠিক ভাবে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন না রাখলে, পিরিয়ডের সময় এক প্যাড দীর্ঘক্ষণ ব্যবহার করলে, জন্ম নেয় দুর্গন্ধ।অনেকের সাদা-স্রাবের সমস্যা থাকে। যা, চিন্তার কারণ। এছাড়া খুব বেশী টাইট পোশাক দীর্ঘসময় পরিধান করলেও ঘামে দুর্গন্ধ হতে পারে। অনেকের প্রস্রাব লিক করার সমস্যা থাকে। সে কারণেও গন্ধ হতে পারে।

কী করবেন দুর্গন্ধ দূর করতে ?
প্রথমেই যা করতে হবে, তা হলো পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা রক্ষা করা। নিজের গোপন অঙ্গের যত্ন খুব ভালোভাবে নিন। সর্বদা পরিষ্কার থাকুন। ভালো অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল সাবান ব্যবহার করুন। বাজারে গোপন অঙ্গ পরিষ্কার করার জন্য ভাল কোম্পানির বিশেষ ধরণের সাবান ও বডি ওয়াশ কিনতে পাওয়া যায়, সেগুলো ব্যবহার করুন। গোপন অঙ্গে পাউডার ব্যবহার করতে হলে অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল ও সুগন্ধী পাউডার ব্যবহার করুন। তবে দীর্ঘসময় একই স্থানে পাউডার দিয়ে রাখবেন না। নিজের পেন্টি পরার আগে পারফিউম ছিটিয়ে নিন। বেশী টাইট অন্তর্বাস পরবেন না পোশাক।

গোপন অঙ্গে দুর্গন্ধ হলে ঢিলেঢালা পোশাক পরাই সবচাইতে ভালো। ভালো কোম্পানির স্যানিটারি ন্যাপকিন ব্যবহার করুন। পিরিয়ডের সময় বাড়তি পরিছন্ন থাকুন। গোপন অঙ্গ পরিষ্কার করতে উষ্ণ জল ব্যবহার করুন। যতবার টয়লেট ব্যবহার করবেন, প্রতিবার ভালো করে সাবান দিয়ে পরিচ্ছন্ন হোন।রোজ রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে গোলাপ জল ও দুধের অল্প মিশ্রণ নিয়ে গোপন অঙ্গে লাগিয়ে নিন।কিছু সময় পর ঠাণ্ডা ভেজানো তুলো দিয়ে পরিষ্কার করে শুয়ে পড়ুন ।এসবের পরেও যদি গোপন অঙ্গের গন্ধ দূর করতে না পারেন, অবশ্যই ডাক্তারের কাছে যান। এটা হতে পারে অন্য কোন শারীরিক সমস্যার ইঙ্গিত! লজ্জায় নিজের শরীরকে অবহেলা করবেন না। গাইনকলজিস্টের পরামর্শ নিন। এবং আত্মবিশ্বাসের সাথে বাঁচুন ।

Share