পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞা আগামীকাল শেষ হচ্ছে মোহাম্মদ আশরাফুলের। বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক এই অধিনায়ক জানান, অনেক দিন ধরে এই দিনটির অপেক্ষায় ছিলেন। ২০১৩ সালে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ম্যাচ পাতানো এবং স্পট ফিক্সিংয়ের দায়ে বিপিএল এন্টি করাপশন ট্রাইব্যুনাল আশরাফুলকে ৮ বছরের নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেছিল।

ঐ বছরের সেপ্টেম্বরে বিসিবির ডিসিপ্লিনারি প্যানেল সাজা কমিয়ে পাঁচ বছর করে। আগামীকাল সেই পাঁচ বছর শেষ হবে। নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্তি পাওয়ার পর বিবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে আশরাফুল বলেন, ‘প্রায় সাড়ে পাঁচ বছর ধরে অপেক্ষা করেছি এই দিনটির জন্য, এবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ও বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে খেলার জন্য তৈরি হচ্ছি’।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে দূরে থাকলেও গত দুই বছর ধরে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলেছেন তিনি। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ ও জাতীয় লিগে দারুণ ফর্মও দেখিয়েছেন মোহাম্মদ আশরাফুল। তার লক্ষ্য এবার জাতীয় দলে ফেরা।
বাংলাদেশের হয়ে ১৭৭টি ওয়ানডে ও ৬১টি টেস্ট ম্যাচ খেলেন আশরাফুল।

আশরাফুল বলেন, ‘যদিও আমি শেষ দুই বছর প্রথম শ্রেনীর ক্রিকেট খেলেছি। পাঁচ বছর আগে থেকেই ভেবেছিলাম জাতীয় দলের হয়ে খেলবো। শেষ ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে ভাল খেলেছি। এবারও ঘরোয়া ক্রিকেটে বাড়তি মনোযোগ থাকবে’।

২০১৬ সালে ঘরোয়া ক্রিকেটে ফেরার পর থেকে মূলত পারফর্ম ও ফিটনেসের প্রতি নজর ছিল মোহাম্মদ আশরাফুলের। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমি মূলত ফিটনেসের প্রতি নজর দিচ্ছি দুইটা বছর ধরে। গেল দু মাসে আট থেকে নয় কেজি ওজন কমিয়েছি এবং ডিপিএলে রানও পেয়েছি’। বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক এখন যুক্তরাজ্যের লন্ডনে অবস্থান করছেন। বিবিসি

 

Share