দুর্দান্ত ফুটবল খেলেছে। করেছেন দুই গোল, বানিয়ে দিয়েছেন আরেকটি। পিছিয়ে পড়া বরুসিয়া ডর্টমুন্ডকে ৩-১ গোলে জেতানোর পরিষ্কার নায়ক ক্রিশ্চিয়ান পুলিসিচই। কিন্তু লিভারপুলের বিপক্ষে এমন পারফরম্যান্সেও ম্যাচ সেরার পুরস্কার ভাগ্যে জোটেনি এই যুক্তরাষ্ট্রের উইঙ্গারের। কারণ, আইনত এখনো পান করার বয়স হয়নি তাঁর।

১৯ বছর বয়সী পুলিসিচের এবারের আন্তর্জাতিক চ্যাম্পিয়নস কাপ বেশ ভালো যাচ্ছে। একে তো নিজের দেশে খেলতে পারছেন, তার ওপর তার দল টানা দুই ম্যাচ জিতেছে। প্রথম ম্যাচে তেমন আলো জ্বালাতে পারেননি। তবে কাল বদলি হিসেবে নেমে ম্যাচের গতি প্রকৃতি একেবারেই পাল্টে দিলেন। প্রথমার্ধে ভার্জিল ফন ডাইকের গোলে এগিয়ে ছিল লিভারপুল। দ্বিতীয়ার্ধে নামা পুলিসিচ ৬৬ মিনিটে পেনাল্টি আদায় করে গোল করে খেলায় সমতা এনেছেন। ৮৯ মিনিটে দলকে এগিয়েও দিয়েছেন।

যোগ করা সময়ে দলের তৃতীয় গোলও এনে দিয়েছেন পুলিসিচ। এমন পারফরম্যান্সের পরও ম্যাচ সেরা কে? ফন ডাইক! কারণ, ম্যাচ সেরার পুরস্কারের স্পনসর ছিল হেইনিকেন (বিয়ার প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান)। যুক্তরাষ্ট্রের আইন অনুযায়ী ২১ বছরের নিচে কেউ বিয়ার পান করতে পারে না। ১৯ বছরের পুলিসিচেরও তাই জেতা হয়নি ম্যাচ সেরার পুরস্কার।

আগামী বুধবার বেনফিকার বিপক্ষে আইসিসিতে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচ খেলবে ডর্টমুন্ড। সেদিনও নিশ্চয় মাঠে নামবেন পুলিসিচ। তবে নিজের সেরাটা নিংড়ে দিলেও কিছুটা হতাশাবোধ তাঁর মধ্যে কাজ করবেই। ভালো খেলেও যে ‘বয়সের কারণে’ পুরস্কার মিলছে না!

Share