জাপানে একাকীত্বে থাকা পুরুষদের জন্য ভার্চুয়াল ওয়াইফ বা ডিজিটাল প্রযুক্তির কৃত্রিম স্ত্রী তৈরি করেছে একটি প্রতিষ্ঠান। হলোগ্রাফিক পর্দায় এই কৃত্রিম স্ত্রীকে দেখা যাবে। সে স্বামীকে ক্ষুদে বার্তাও পাঠাবে। খবর বিবিসির।

অভিনব এই ভার্চুয়াল স্ত্রী তৈরি করেছে ভিনক্লু নামের একটি কোম্পানি। তাদের মূল লক্ষ্য জাপানের অবিবাহিত তরুণরা। কারণ এই তরুণদের মধ্যে বিচ্ছিন্নতা এবং একাকীত্ব একটি বড় সমস্যা বলে মানা হয়।

এই ভার্চুয়াল স্ত্রীর নাম হচ্ছে হিকারি। সে ‘গুড মর্নিং’ বলে স্বামীকে ঘুম থেকে জাগাবে। শুধু তাই নয় প্রতিদিনের আবহাওয়া কেমন, ঘরের বাতি জ্বালানো-নেভানো, এসি বন্ধ করা এবং স্বামীকে অফিসে যাবার আগে বিদায় দেবে সে।

স্বামী যখন কফি খাবে তখন তাকেও হলোগ্রাফিক পর্দায় কফি খেতে দেখা যাবে। যখন স্বামী অফিসে কাজ করবে তার ফাঁকে ফাঁকে নানা রকম বার্তাও পাঠাবে হিকারি। কাজ শেষে বাড়ি ফিরলে সে স্বামীকে স্বাগত জানাবে।

ভার্চুয়াল স্ত্রী হিকারির দাম হবে ২ হাজার ৭শ’ ডলার। আগামী বছর অর্থাৎ ২০১৭ সালের শেষ দিকেই এটি বাজারে পাওয়া যাবে বলে জানানো হয়েছে।

তবে এ নিয়ে এখন থেকেই মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। অনেকে বলছেন, এটা তরুণদের অসামাজিক করে তুলবে। আবার অন্যদের ধারণা এটি একাকীত্ব ও বিষণ্ণতা কাটাতে সহায়ক হবে।

Share