খাদ্য ও পুষ্টি

ভালো থাকার সহজ উপায় ‘ঘি’

বেশিরভাগ লোক মনে করেন ঘি খেলে নাকি ওজন বাড়ে৷ লোকে ঘি খান কেবল স্বাদের জন্য, কিন্তু এর গুনাগুন সম্পর্কে অনেকেই জানেন না৷

ঘি হৃদজনিত রোগ দুরে রাখতে সাহায্য করে৷ ঘি’তে প্রচুর পরিমাণে ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে যা ডায়াবেটিস ও হৃদরোগ থেকে বাঁচায়৷ হজমে ঘি’য়ের জুরি মেলা ভার৷ ঘি তে বুটোরিক অ্যাসিড থাকে যা অন্ত্রের কোষতে পুষ্টি প্রদান করে৷ এমনকি পেটের জ্বালাভাব ও কমাতে সাহায্য করে৷

গর্ভবতী মহিলাদের অবশ্যই ঘি খাওয়া উচিত, কারণ এতে কে২ ভিটামিন থাকে যা চেহারা ও দাঁতের জন্য ভালো৷ এতে গর্ভজাত সন্তানের গায়ের রঙ ফর্সা হয় ও তার দাঁত মজবুত হয়৷

ঘি কিন্তু ওজন কমাতে সাহায্য করে৷ এক গবেষণায় দেখা গেছে যারা ছ’মাস ধরে টানা ঘি খেয়েছেন তাদের ওজন কমেছে৷ যদিও সঙ্গে নিয়মিত ব্যায়াম অবশ্যই জরুরী৷

চুলের সৌন্দর্যের ক্ষেত্রেও ঘি উপযোগী৷ এটি চুলের কন্ডিশনার হিসেবে কাজ করে৷ এতে চুল মোলায়েম ও উজ্জ্বল হয়৷ চুলের রুক্ষতা দূর করতে সাহায্য করে এটি৷ ঘি সামান্য গরম করে তার সঙ্গে বাদাম তেল মিশিয়ে চুলে মালিশ করা উচিত৷ মালিক করার ১৫ মিনিট পর গোলাপজল দিয়ে চুল ধুয়ে নিলে চুল থেকে তেল বেড়িয়ে যাবে৷ এতে চুল সুন্দর হয় ও চুলের রুক্ষতাও দূর হয়৷