কুয়েত থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের গুজব

কুদস বাহিনীর সাবেক প্রধান কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার প্রতিশোধ হিসেবে বুধবার ইরাকে মার্কিন সেনা ঘাঁটিতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর থেকে উত্তপ্ত গোটা মধ্যপ্রাচ্য। এ অবস্থায় কুয়েতের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা কুয়েত নিউজ এজেন্সির (কুনা) টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে দেশটি থেকে মার্কিন সৈন্য প্রত্যাহারের খবর ছড়িয়ে পড়েছে। তবে কুয়েত সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে কুনা’র টুইটার অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়েছে ।

বুধবার কুনার টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে কুয়েতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী আহমেদ মানসুর আল-আহমেদ আস-সাবাহ’র বরাত দিয়ে বলা হয়, দেশটির আরিফজান সামরিক ঘাঁটি থেকে তিন দিনের মধ্যে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে একটি চিঠি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় গ্রহণ করেছে। সংবাদটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোচনার জন্ম দেয়।

এরপর কুনার টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে অন্য একটি টুইটে বলা হয়, ‘কুয়েত থেকে মার্কিন সামরিক বাহিনী প্রত্যাহারে কুয়েতের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর বরাত দিয়ে যে খবর প্রকাশিত হয়েছে; তার সত্যতা অস্বীকার করছে কুনা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে (টুইটারে) আমাদের অ্যাকাউন্ট হ্যাকড হয়েছে।’

তবে, ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর কানাডা ইরাক থেকে সাময়িকভাবে ৫শ’ সেনা কুয়েতে সরিয়ে নেওয়ার ঘোষণা দেয়। এর কিছুক্ষণ পর স্পেনও ইরাকে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে লড়াইয়ে অংশ নেওয়া অল্পসংখ্যক সেনা সেখান থেকে সরিয়ে কুয়েতে নেয়ার ঘোষণা দেয়।

উল্লেখ্য, গত ৩ জানুয়ারি ইরাকে মার্কিন হামলায় ইরানের কুদস বাহিনীর নেতা কাসেম সোলাইমানি নিহত হওয়ার পর প্রতিশোধ স্বরূপ বুধবার মার্কিন ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইরান। তাদের দাবি হামলায় অন্তত ৮০ মার্কিন সেনা নিহত হয়েছেন। এই ঘটনার পর থেকেই মধ্যপ্রাচ্যে অস্থিরতা কয়েকগুণ বেড়ে গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *