রাজপরিবারের দায়িত্ব ছাড়ছেন হ্যারি-মেগান

ব্রিটিশ রাজ পরিবারের জ্যেষ্ঠ সদস্যের দায়িত্ব ছাড়ছেন ডিউক অব সাসেক্স প্রিন্স হ্যারি এবং ডাচেস মেগান মার্কেল।

এক বিবৃতিতে তারা এ দায়িত্ব থেকে সরে এসে আর্থিকভাবে স্বনির্ভর হওয়ার জন্য কাজ করার ঘোষণা দিয়েছেন বলে বৃহস্পতিবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

রাজপরিবার ছাড়ার পর ছেলে আর্চিকে নিয়ে অর্ধেক সময় যুক্তরাজ্য আর বাকি অর্ধেক সময় উত্তর আমেরিকিয়া কাটাবেন ৩৮ বছর বয়সী মেগান ও ৩৫ বছর বয়সী হ্যারি।

রানি, প্রিন্স উইলিয়াম কিংবা রাজপরিবারের কোনও সদস্যকে না জানিয়ে হঠাৎ করে হ্যারি ও মেগানের এমন সিদ্ধান্তে হতাশ হয়েছেন রাজপরিবারের সদস্যরা।

গত অক্টোবরে গণমাধ্যমের নজরদারির মধ্যে থাকতে থাকতে জীবন বিষিয়ে ওঠার কথা জানান হ্যারি-মেগান। এর তিন মাসের মাথায় বুধবার বিবৃতি দিয়ে ও ইনস্টগ্রামে পোস্ট দিয়ে রাজপরিবার ছাড়ার কথা জানালেন তারা।

বিবৃতিতে হ্যারি-মেগান বলেন, আমরা রাজ পরিবারের জ্যেষ্ঠ সদস্যের দায়িত্ব থেকে সরে আসতে চাইছি। আর্থিকভাবে স্বনির্ভর হওয়ার জন্য কাজ করতে চাই। পাশাপাশি মহামান্য রানির প্রতি আমাদের পূর্ণ সহযোগিতা থাকবে।

রানি, কমনওয়েলথ ও অভিভাবকদের প্রতি দায়িত্বের বিষয়ে পূর্ণ সম্মান রেখেই যুক্তরাজ্য ও উত্তর আমেরিকার মধ্যে তারা সময় ভাগ করে নিতে চান বলেও জানান এই দম্পতি।

এই দম্পতির রাজপরিবার ছাড়ার ঘোষণার পর বাকিংহাম প্যালেস এক বিবৃতিতে বলেছে, হ্যারি-মেগানের চিন্তা-ভাবনাটি প্রাথমিক পর্যায়ে আছে। এ ধরনের জটিল বিষয় নিয়ে আরেকটু সময় নিয়ে কাজ করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *